Sunday, 27 October 2019

ভার্মিকম্পোস্ট ব্যাবহারের উপকারিতা (Vermicompost Benefits)

ভার্মিকম্পোস্ট ব্যাবহারের উপকারিতা

ভার্মিকম্পোস্ট ব্যাবহারের উপকারিতা
Vermicompost Benefits

বর্তমানে ভার্মিকম্পোস্ট আর চাহিদা প্রচুর । কিন্তু প্রজনের অনেক কমই আমরা উৎপাদন করতে পারি । ভার্মিকম্পোস্ট যাকে চলতি কোথায় কেঁচো সার বলে থাকে। এই সারের উপকারিতা এখন চাষীরাও খুব ভালো করে বুজতে পারছে । এখনথেকে ১৫ বছর আগে আমাদের কৃষি বিজ্ঞানী রা জানতে পারছিলেন আগামী দিনগুলো চাষের পক্ষ খুবই খারাপ হতে চলেছে । চাষী রা দ্রুত সব্জি উৎপাদন বা একই জমিতে একাধিক বার সবজি ফোলানোর জন্য রাসায়নিক সার ব্যবহার করে থাকেন । এই রাসায়মক সার  অধিক মাত্রায় ব্যবহার করার ফলে চাষের জমির যে ক্ষতি হয়েছে অপরিসীম ।


ভার্মিকম্পোস্ট বাবহারের উপকারিতা যে কি তা জানানোর জন্য এখন সরকার অনেক রকম পদ্ধক্ষেপ নিয়ে চলেছে । মাটির বন্ধু হলো কেঁচো । একই জমিতে বারবার বেশি  পরিমানে দ্রুত ফসল বা সব্জি ফোলানোর জন্য চাষী রা যে রাসায়নিক সার ব্যাবহার করছে তার ফলে জমির সব কেঁচো মোরে যাচ্ছে । সেই কারনে জমির স্বাভাবিক উৎপাদন ক্ষমতাও হ্রাস পাচ্ছে । এর ফল স্বরূপ বর্তমানে, যে ফসল উৎপাদন করতে এখন থেকে ১৫-২০ বছর আগে চাষীরা খুব সামান্য পরিমানে গোবর সার ব্যাবহার করলেই হয়ে যেতো , এখন তা আর সম্ভব হয়ে উঠছে না । তার কারণ হলো চাষের জমির স্বাভাবিক উর্বর ক্ষমতা পুরোটাই প্রায় চলে গাছে রাসায়নিক সার ব্যাবহার এর ফলে ।

সরকার এখন আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছে কি ভাবে চাষীদের রাসায়নিক সার ব্যাবহার করা কমানো যায় । তার একটা পদ্ধিতি হলো - যে রাসায়নিক সার বিক্রেতা তার কাছেই কেঁচো সার থাকবে এবং একটা নির্দিষ্ট পরিমান রাসায়নিক সার কিনলে একটা পরিমান কেঁচো সার কিনতেই হবে । এই পদ্ধিতি টা বেশ উপকার এনেছে । চাষীভাইরা নিজেরাই বুজতে পারছে যে রাসায়নিক সার বাবহারের অপকারিতা কতখানি ।

এখন প্রশ্ন হলো ভার্মিকম্পোস্ট বাবহারের উপকারিতা বা কেঁচো সার ব্যাবহার করলে আমরা কি কি উপকার পাবো ? একটা কথা প্রথমেই জেনে নেওয়া উচিত যে - যারা বা যে যে চাষীভাইরা এতদিন ধরে তাদের চাষের জমিতে রাসায়নিক সার ব্যাবহার করে চলেছেন তারা যদি হটাৎ নতুন চাষার জন্য কেঁচো সার ব্যাবহার করেন তার উৎপাদন পরিমান কিন্তু অনেক কমে যাবে বা আরো সমস্যা আসতে পারে । যে কারণে কেঁচো সার এবং রাসায়নিক সার পরিমান মতোন ব্যাবহার করুন । যার জন্য নিকটবর্তী কৃষি কেন্দ্র যোগাযোগ করতে হবে ।

আমি নিজে ভার্মিকম্পোস্ট বা কেঁচো সার উৎপাদন করি । আমার কেঁচো সারের সবুজ উপাদনটা আমি আমার জমির পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া সরস্বতী নদী র কচুরি পানা ব্যাবহার করি । যে কারণে আমার কেঁচো সারের রং টা আসে কালো । এই সার দিয়েছি আমার এক পেঁপে চাষী বন্ধুকে, আমার এক টমেটো চাষী কে আর আমি নিজে ব্যাবহার করেছি ।


vermicompost unit chinpack
সরস্বতী নদীর কচুরি পানা ব্যাবহার কর


সব্জি চাষার ক্ষেত্রে কেঁচো সারের উপকারিতা হলো : গাছের ঋতু কালীন সব্জি ফলন ক্ষমতা অনেক বেড়ে যায় । যেমন টমেটো চাষ শুরু করার প্রকৃত সময় ভাদ্র মাস বা অগাস্ট থেকে সেপ্টম্বর। টমেটো চাষে যদি কেঁচো সার ব্যাবহার করা যায় তাহলে গাছের ফলন ক্ষমতা একাধিক বার হয়ে যাবার  সম্ভবনা থাকে (সঠিক পদ্ধতি জানা বাঞ্চনীয় )। যে কারণে টমেটো চাষীরা একবার চাষে অনেক বেশি বাজার দরে বিক্রি করতে পারেন ।


পেঁপে চাষে কেঁচো সারের ব্যাবহার


ফুল চাষের ক্ষেত্রে ফুলের সতেজতা স্বাভাবিক এর থেকে ৩০ থেকে ৫০% বেরে যাতে পারে ।

তবে একটা কথা অবিশাই মনে রাখা উচিত যে- যেহেতু এই সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটা নির্ভর করে কেঁচো সারার গুণগত মানের উপর, সুতরাং আপনি কি গুণমানের সার ব্যাবহার করছেন তার উপর নির্ভর করছে ফুল বা সব্জি গাছের ফলন ক্ষমতা।

আমরা আপনাদের উচ্চ গুণমানের সার সরোবরহ করতো পারি অথবা আপনি চাইলে আমাদের অভিজ্ঞ ব্যাক্তির দ্বারা আপনাদের জায়গাতে কেঁচো স্যারের উৎপাদন ক্ষেত্র বানিয়ে দিয়ে আসতে পারি ।

আমাদের যোগাযোগের ঠিকানা

CHINPACK
Ankur Banerjee - 9831815857 / 9804716671
E-mail: chinpack@gmail.com



0 comments:

Post a Comment